সাম্প্রতিক সংবাদ

করোনাকালে এক মানবিক কর্মীর নাম আলাউদ্দিন পাশা

প্রকাশিত: ১২:৪৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৪, ২০২১

করোনাকালে এক মানবিক কর্মীর নাম আলাউদ্দিন পাশা

নিজস্ব প্রতিবেদক :: আলাউদ্দিন পাশা এক মানবিক কর্মীর নাম। যেখানে মানবতার ডাক আসে সেখানে সে হাজির। কি দিন কি রাত এ ভাবে চলছে তার জীবন। করোনাকালিন শুরু থেকে আজ অবদি সে সিলেটের প্রত্যন্ত অঞ্চলে কাজ করে চলছে করোনার এই কঠিন মুহুর্তে ও তার পথচলা থেমে খাকেনি নিত্য আছে মানুষের পাশে। ত্রাণ,চিকিৎসা,বস্ত্র ও খাবার । কখনও দরিদ্রজনের বাড়ি বাড়ি খাবার নিয়ে,কখনো বেওয়ারিশ অসুস্থ ব্যাক্তিদের খাবার, চিকিৎসার ব্যবস্থা এ ভাবে চলছে তার জনহিতকর কল্যানধর্মী কার্যক্রম। ‘সবার সুখে হাসব আমি কাঁদব সবার দুখে, নিজের খাবার বিলিয়ে দেব অনাহারীর মুখে’।

পল্লীকবি-জসীম উদ্দীনের কবিতার চরিত্রের মতোই নিজের খাবার বিলিয়ে দিচ্ছেন সিলেটের মানবিক কর্মী আলাউদ্দিন পাশা।

সিলেট জেলার বিশ্বনাথ উপজেলার কামাল বাজারের লালটেক গ্রামের বাসিন্দা আলাউদ্দিন পাশা। সম্প্রতি সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউনের মধ্যে ও সে চাউল, ডাল,বিরানি ও নগদ অর্থ সাহায্য দিয়ে সে এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করে যাচ্ছে।

আলাউদ্দিন পাশা জানান, নানান প্রতিকুলতা উপেক্ষা করে অসহায় গরীব দুঃখী ও মেহনতি মানুষের কাজ করছি কখন পরিবারের পক্ষ থেকে,কখনোইবা অন্যদের কাছ থেকে সহযোগীতা নিয়ে অসহায়দের মুখে হাসি ফোটানো যেন তার প্রতিদিনের রুটিন। তারই ধারাবাহিকতায় প্রতিদিনের ন্যয় আজ ও সকাল থেকেই অসহায় মানুষদের মধ্যে ত্রান সামগ্রী ও নগদ অর্থ প্রদান করেন শুধু তাই নয় কোন কোন ক্ষেত্রে অসহায়দের খোঁজে বের করে খাবার ও নগদ অর্থ প্রদান করে যাচ্ছে মানবিক আলা উদ্দিন পাশা। পাশা জানায় আজ অসহায় মধ্যবিত্ত পরিবারের মাঝে ৩০০ পরিবারের কাছে খাদ্য সামগ্রী সে পৌঁছে দিয়েছে এবং কিছু মানুষ কে নগদ অর্থ প্রদান করেছে। জানান লকডাউন যত দিন চলবে সকল ধরনের সহযোগিতা চালিয়ে যাবে। আর্থিক অনুদান, শারীরিক শ্রমসহ সকল প্রকার সহযোগিতা যারা তার পাশে এসে দাড়িয়েছেন তার জন্য সবার প্রতি সে ভালোবাসা ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে।

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারনে গোটা বিশ্ব যখন দিশেহারা। কঠোর লকডাউনে সব কিছু বন্ধ নিম্নবিত্ত মধ্যবিত্তরাও সংকটে পড়েছে সে কঠিন সময় কারো কাছে হাত পাতা সম্ভব হচ্ছেনা এমন পরিস্থিতিতে মানবতার ডাকে সাড়া দিয়ে দিনরাত সিলেটের এ-প্রান্ত থেকে ও-প্রান্ত ছুটে চলেছেন আলাউদ্দিন পাশা। সাধ্যমতো সহায়তা তুলে দিচ্ছে দুর্দশাগ্রস্ত পরিবারের হাতে। ইতোমধ্যে সে মানবতার ফেরিওয়ালা’ হিসেবে পরিচিত হয়ে উঠেছেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ