সাম্প্রতিক সংবাদ

বাংলার বিলুপ্তপ্রায় ধানের জাত রক্ষায় এগিয়ে এসেছে অদেখা ফাউন্ডেশন

প্রকাশিত: ৯:৫১ অপরাহ্ণ, মে ১৭, ২০২১

বাংলার বিলুপ্তপ্রায় ধানের জাত রক্ষায় এগিয়ে এসেছে অদেখা ফাউন্ডেশন

আবহমান বাংলার চিরচেনা ধানের জাতগুলোকে রক্ষায় এগিয়ে এসেছে ‘অদেখা ফাউন্ডেশন’ নামক একটি সংস্থা। নতুন নতুন ধানের আবিস্কারের ফলে হাইব্রীডের কবলে পড়ে বিলুপ্তপ্রায় ধুমাই, চেংড়ি, মুরালি, ময়না শাইল প্রভৃতি জাতের ধানকে রক্ষা করতে বিশেষ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে সংস্থাটি। তারই ধারাবাহিকতায় ১৭ মে সোমবার দুপুর ১২টায় সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার হেতিমগঞ্জের কতোয়ালপুরস্থ ফসলের মাঠে আনুষ্ঠানিকভাবে ধুমাই ধানের চারা রোপন করে অদেখা ফাউন্ডেশন।
এসময় উদ্যোক্তা ও বিশ^শিল্পী কবি সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সুমন আহমদ বলেন, আমাদের বাংলাদেশের জনপ্রিয় অনেক জাতের ধান এখন হারিয়ে যেতে বসেছে। আমাদের দাদা-দাদীরা এক সময় যে সব ধান রোপন করে ঘরে ফসল তুলতেন এসব ধান এখন নতুন নতুন জাতের ধানের আবিস্কারের ফলে বিলুপ্ত হতে চলেছে। আমরা আমাদের ঐতিহ্যকে ধরে রাখতে হবে। তাই আমাদের লক্ষ্য বাংলাদেশের হারিয়ে যাওয়া এবং বিলুপ্ত প্রায় ধানগুলোকে রক্ষা করা। তাই ঐতিহ্যরক্ষায় আমাদের সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। তিনি বলেন, এক সময় দেশীয় বিভিন্ন জাতের চাউলের সুঘ্রানে মুগ্ধ হতেন মানুষজন। এখন বিশেষ পদ্ধতিতে আবিস্কৃত ধানগুলোর আগ্রাসনে সেই ঘ্রান যেন ম্লান হয়ে যাচ্ছে। তিনি বলেন, আমাদের নিজস্ব বীজ না থাকলে আমরা পরাধীন হয়ে যাবো। আমাদের কৃষককে বাঁচাতে নিজস্ব ধানের জাতগুলোকে রক্ষা করতে হবে।
ধুমাই ধান রোপনকালে উপস্থিত ছিলেন, অদেখা ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য রানী ফেরদৌস, রায়না রোকীনা ভ্যান, মেহেদী হাসান খান, বাবুল আহমদ, শামীম আহমদ, ফারুক হোসেন খান প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ